কুমিল্লায় ধর্ষণের পর প্রবাসীর স্ত্রীর সন্তান প্রসব নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

Posted on by

কুমিল্লা টিভি নিউজঃ ধর্ষণ একটি আতংকের নাম বর্মমান সমাজে।সারাদেশে ধর্ষনের ঘটনা ক্রমেই বেড়ে চলেছে।ধর্ষণের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না নিজের মেয়েও।ধর্ষণকে অপরাধই মনে হচ্ছে না লম্পটদের কাছে।লম্পটদের লালসার শিকার হচ্ছে দেশের হাজারো নারীও শিশু।এবার ধর্ষনের শিকার হয়েছেন এক গৃহবধু।জানা গেছে,কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলায় এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের পর গর্ভবতী ও সন্তান প্রসব হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।নাঙ্গলকোট উপজেলার বটতলি ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামে চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্যেও সৃষ্টি হয়েছে।স্থানীয় অনেকের দাবি,ধর্ষণ নয় এটি পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল।জন্ম নেয়ে এ সন্তানের দায়িত্ব নেওয়া নিয়েও জন মনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।এদিকে পুলিশ এ ঘটনায় ইতোমধ্যে অভিযুক্ত ধর্ষক আবুল কাশেমকে (২৪) গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করেছে।জানা গেছে,আবুল কাশেম কাশিপুর গ্রামের মৃত ইউনুছ মিয়ার ছেলে।

থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রের খবর অনুযায়ী,কাশিপুর গ্রামের এক প্রবাসীর স্ত্রী গত বছর অর্থাৎ ২০১৭ সালের ১০ অক্টোবর রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরে বাহিরে যায়।এই সুযোগে ওই গৃহবধূর ঘরে ঢুকে পড়ে একই গ্রামের লম্পট আবুল কাশেম।পরে গভীর রাতে ওই নারীর মুখ চেপে ধরে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।এখানেই শেষ নয়,এরপর থেকে প্রায়ই বিভিন্ন সময় ব্ল্যাকমেইল করে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে আবুল কাশেম।এক পর্যায়ে ওই নারী গর্ভবতী হয়ে পড়েন।

সম্প্রতি ওই গৃহবধূর প্রবাসী স্বামী ৪ বছর পর বাড়িতে এসে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখে সন্দেহ করেন।এ সময় ওই নারী তার স্বামীকে তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনার পুরোটাই খুলে বলেন। পরে চলতি মাসের গত ১৩ সেপ্টেম্বর ধর্ষিতা ওই নারী একটি ছেলে সন্তান প্রসব করেন।ধর্ষিতা ওই নারী পুত্র সন্তান প্রসবের পর মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বাদী হয়ে নাঙ্গলকোট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এর পরই পুলিশ বটতলি এলাকা থেকে ধর্ষক আবুল কাশেমকে আটক করে কুমিল্লা আদালতে প্রেরণ করে।

তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই গ্রামের এক স্কুল শিক্ষক জানান,ওই প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে ধৃত আবুল কাশেমের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। অবৈধ এ সম্পর্কের জেরে ওই নারী সন্তান প্রসব করেছেন। আর মিথ্যা ধর্ষন মামলা দিয়ে আবুল কাশেমকে জেলখানায় পাঠিয়েছে।এ ঘটনার বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম পিপিএম বলেন, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধু বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ করে ।অভিযোগের পেক্ষিতি পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষককে গ্রেফতার করে পরে আদালতে প্রেরন কারা হয়।

Leave a Reply

More News from কুমিল্লা

More News

Developed by: TechLoge

x