কুমিল্লায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা; যুবক গ্রেফতার

Posted on by

কুমিল্লা টিভি নিউজঃ কুমিল্লা লাকসামে তোরাব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে (১৩) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে রিপন হোসেন(৩৪) নামের এক যুবক কে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।

গত ৫ই সেপ্টেম্বর রাত ১০টায় দিকে উপজেলা মুদাফরগঞ্জ (দঃ) ইউপি’র কাগৈয়া গুচ্ছ গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। পরে স্থানীয়ভাবে বিচার না পেয়ে গত রোববার রাতে ওই স্কুল ছাত্রীর মা থানায় একটি অভিযোগ করেন। অভিযোগ প্রেক্ষিতে সোমবার লাকসাম থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত রিপন হোসেনকে গ্রেপ্তার করেন।অভিযোগ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায় গত ৫ই সেপ্টেম্বর বুধবার সন্ধায় উপজেলা মুদাফরগঞ্জ (দঃ) ইউপি’র কাগৈয়া গুচ্চ গ্রামে ডিসি’র আগমন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা আয়োজন করা হয়। স্কুল ছাত্রী’র বাবা-মা মেয়েকে ঘরে একা রেখে ওই অনুষ্ঠানে জান।

এসময় পাশের প্লটের খলিলুর রহমানের ছেলে রিপন হোসেন ওই ছাত্রী’র নীজ ঘরে ঘুমান্ত অবস্থায় একা পেয়ে ঘরে ডুকে দরজা বন্ধ করে ধর্ষনের চেষ্টা চালালে স্কুল ছাত্রী অত্মচিৎকারে শুনে পাশের প্লটের জসিম, তাসলিমা বেগম বিষয়টি সভাস্থলে গিয়ে তার বাবা-মায়ের কাছে জানায়।

তখন মা-বাবা সহ আশপাশের লোক জন ছুটে আসতে দেখে রিপন হোসেন দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাটি গুচ্চ গ্রামে জানাজানি হলে স্থানীয় মেম্বার বিষয়টিকে মিমাংসা করার কথা বলেন। কিন্তু দীর্ঘ ৪দিন স্থানীয়ভাবে বিচার না পেয়ে ছাত্রী’র মা বাদী হয়ে লাকসাম থানায় অভিযোগ করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ফজজুল আলম মিয়াজী বলেন, ওইদিন স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের চেষ্টার বিষয়টি তার মা আমাকে জানালে আমি স্থানীয় লোকজনকে নিয়ে তা মিমাংসা করে দিব বলে আশ্বাস দেই। ওইদিনের পর থেকে আমার এলকায় বিশেষ কাজ থাকার কারনে বিষয়টি সমাধান করতে পারিনি। এরই মধ্যে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে বিষয়টি তদন্ত করেন। সোমবার রিপন হোসেনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়।লাকসাম থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মনোজ কুমার দে জানান, স্কুল ছাত্রীর ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

Leave a Reply

More News from কুমিল্লা

More News

Developed by: TechLoge

x