১২ জুলাই চান্দিনায় কর্নেল অলি আহাম্মদ এর গাড়ী ভাঙচুর ‘প্রধানমন্ত্রীর নিকট ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান’

Posted on by

মো. শরীফুল ইসলাম
চান্দিনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার চান্দিনায় লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির-এলডিপি’র সভাপতি ড. কর্নেল অলি আহাম্মদ (অব.) বীরবিক্রম এর গাড়ী ভাঙচুর করা হয়।বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) বেলা পৌনে ১টায় চান্দিনা থানা থেকে তিনশত গজের মধ্যে চান্দিনা পাইলট স্কুল খেলার মাঠ সংলগ্ন সড়কে ওই ঘটনা ঘটে।চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ ডিগ্রি কলেজ ক্যাম্পাস-২ এ নব-নির্মিত মমতাজ আহমেদ ভবন এর উদ্বোধীন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ গ্রহণ করতে যাওয়ার পথে দুষ্কুতকারীরা তার গাড়িতে হামলা চালিয়ে ইট-পাটকেল ছুড়ে।এতে তাকে বহনকারী পাজেরু গাড়ীর (ঢাকা মেট্রো-ঘ-১৩-৪৬৪৬) পেছনের গ্লাস সম্পূর্ণরূপে ভেঙে যায়।তবে ড. কর্নেল অলি আহাম্মদ (অব.) বীরবিক্রম অক্ষত রয়েছেন।এদিকে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা কালে পুলিশ ও প্রশাসনের প্রতি বিষোদ্গার করেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির-এলডিপি’র সভাপতি ড. কর্নেল অলি আহাম্মদ (অব.) বীরবিক্রম। এসময় তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে ওই হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানান।
সাবেক এই মন্ত্রী বলেন- ‘পুলিশের সামনে মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসীরা হামলা করবে, এজন্য এ দেশকে স্বাধীন করিনি।আওয়ামীলীগ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি, আওয়ামীলীগকে ধন্যবাদ জানাই। যার কর্মীরা মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা করতে চায়! পুলিশ ও ইউএনও অফিসের পাশে, আগে-পেছনে একাধিক পুলিশ অফিসার এমনকি ওসির উপস্থিতিতে এধরনের হামলা আমি কল্পনাও করতে পারি না। তারা দেশের ক্ষতি করেছে, আওয়ামীলীগের ক্ষতি করেছে।বিকেলে চান্দিনা পৌর এলডিপি,অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন বন্ধ করে দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন- ‘রাজনৈতিক দলের সভা,সমাবেশের জন্য ইউএনও,ওসি’র অনুমতি নিতে হবে কেন।এটা গণতন্ত্রের জন্য হুমকি।হামলার প্রসঙ্গ টেনে হামলার সময় চান্দিনা থানার ওসি’র নিরব ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন তিনি।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন- কলেজ প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির-এলডিপি’র মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ। সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী বলেন- ‘একজন বীরবিক্রমকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করা হয়েছে। এই বিচারের ভার আমি চান্দিনাবাসীর নিকট দিলাম। জনগণ সন্ত্রাসীদের পক্ষে থাকে না। আগামী নির্বাচনে ভোটের মাধ্যমেই জনগণ এর বিচার করবে।পুলিশ মাস্তানদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে সহযোগীতা করেছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন- কলেজের আজীবন দাতা সদস্য মিসেস মমতাজ আহমেদ, পরিচালনা পর্ষদ সদস্য সুলতান মঈন আহামেদ রবীন।অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন- কলেজ অধ্যক্ষ মো.মনিরুল ইসলাম ভূইয়া।সঞ্চালনা করেন- কলেজের আইসিটি বিভাগের প্রভাষক মো. গিয়াস উদ্দিন ভূইয়া।অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কুমিল্লা উত্তর জেলা এলডিপি’র সভাপতি কেএম শামসুল হক মাস্টার, চান্দিনা উপজেলা এলডিপি’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. আতিকুর রহমান,কেন্দ্রীয় গণতান্ত্রিক যুবদল সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ আবুল কাশেম,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবু তাহের,চান্দিনা পৌর এলডিপি’র আহবায়ক মো.শাহ আলম,চান্দিনা পৌর গণতান্ত্রিক যুবদল সাধারণ সম্পাদক মো.জামশেদ আহমেদ জাকি,গণতান্ত্রিক যুবদল নেতা মো. মনির হোসেন শানু,গণতান্ত্রিক ছাত্রদল নেতা মো.সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ।অনুষ্ঠানে কলেজের শিক্ষকমন্ডলী,ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

More News from কুমিল্লা

More News

Developed by: TechLoge

x